আপনার অতি শ্রদ্ধায়, তারা অধিকার বঞ্চিত হচ্ছে নাতো?

0
393

মুরুব্বী রিকসা চালক দেখে যে কারো শ্রদ্ধা বোধ একটু বেশি বেড়ে যায়,!!!
আর এই শ্রদ্ধা বোধ থেকেই তার রিকসা অনেকেই চড়তে চায়না,
আবার মুরুব্বী রিকসা চালকগন ভাড়া একটু বেশি হাকায় এবং খুব আস্তে আস্তে চালায়, যা চলার পথে অসহনীয়.!!!

গত রাতে অফিস থেকে ফেরার পথে, এই চাচাকে দেখছি ঘেনঘেন করছে,
জিজ্ঞাস করলাম চাচা কি হয়েছে,? তিনি জিবাব দিলো যামুনা, কোথায় যাবেননা,?

না গাড়ী বন্ধ কইরা দিমু..!
এখন যাবেন কোন দিকে? সে আমার বিপরীত দিকে ইশারা করলো!!!

চাচা উঠি সামনে নামিয়ে দিয়েন,
কিছু দূরে গিয়ে আর যামুনা, ১০০ টাকা দিয়ে বললাম যা রাখার রাখেন,। সে ডাবল ভাড়াই রাখলো, বললাম আর কিছু রাখেন,
সেবলে না যা ভাড়া তাই রাখছি।

কেউ বলতে পারেন আমি ১০০ টাকা তাকে দিয়ে দিলামনা কেনো,আমি চেয়েছি তাকে কিছুটা সহযোগিতা করি দান করা নয়।


মূলত লোকটিকে দেখার পড়ে প্রফেসর ড. মুহাম্মাদ আসাদুল্লাহ আল-গালিব স্যারে একটা উপদেশ মনে পড়ে গেলো । তিনি একদিন বলেছিলেন মুরুব্বী রিকসাওয়ালাদের দেখো, জেনো বেশি সম্মান দেখাতে গিয়ে তাদের অবহেলায় ঠেলে না দেই, তিনি বলেছিলেন আমি রিকসায় চড়লে আগে তাদেরকেই খুঁজি, কারণ সবাই চিন্তা করে তাড়াতাড়ি যেতে হবে আর ঐ বেচারা বৃদ্ধ মানুষ সেই বল তার আছে নাকি, আমার একটু দেড়ি হয় হোক এই ব্যাটার কিছু ইনকাম হোক, সবাই যদি তাড়াতাড়ির চিন্তা করি এই বুড়া লোকটা খাবেকি, ও অনেক আশাকরে এই রোদবৃষ্টি চেপে রিকসা নিয়ে বেড়িয়েছে,।

স্যারে সেই কথাটা আমার মনে আছে তাই আজ কাজে লাগিয়ে দিলাম, “আলহামদুলিল্লাহ্‌”।


আমরা প্রায়ই পথে পাশে কিংবা বাজারে বৃদ্ধ লোকদের কে অল্প সামান্য কিছু পণ্য নিয়ে বসে থাকতে দেখি, এবং অনেকেই এইগুলোকে ন্যায্য মূল্যের চেয়ে ও কমে কিনতে চায়। আবার কেউ কেউ এর চেয়ে বেশি দামে অন্য স্থান থেকে কিনে কিন্তু তাদের থেকে নেয়না।

আসুন আমরা এই নীতি পরিহার করি, বাজারে খুঁজে খুঁজে তাদের থেকে ন্যায্যমূল্যে পণ্য ক্রয় করি কিংবা একটু বাড়িয়ে দিয়ে দেই ।

মনে রাখবেন, প্রকৃত বিশ্বাসীরা কখনো ঠকে না। বরং তারা অন্যদের জিতিয়ে দেয়।

©সাহাবা নিউজ.কম

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here