নাস্তিক মুফাস্সিল ইসলামের প্রত্যাবর্তণ

0
28

মুফাস্সিল ইসলাম, তার নামের শেষে ‘ইসলাম’ শব্দটি থাকলেও নামটি শুনলেই ঘৃণায় ও রাগে চোখ লাল হয়।আর হবেই না কেন..! যখন সৃষ্টিকর্তা কর্তৃক মনোনিত রাসূল ও মনোনিত ধর্মকে নিয়ে কুৎসা রটনা করা হয়। তবে এবার তাকে একটু ভিন্ন দৃষ্টিতে চোখে পড়লো। বাংলাদেশের নাস্তিকদের গ্যাং ‘মুফাস্সিল ইসলাম’ আবারো ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন- এরকম একটা ভিডিও যখন ইউটিউবে ভাইরাল হতে শুরু করলো।আবারো বললাম কারণ তিনি আগেও একবার এরকমটা বলার পর পরই মদ পান করে ধর্মকে তিরস্কার করেছেন। তবে এইবার তাকে একটু ভিন্ন সাজে দেখাচ্ছে। আল্লাহ সুবহানাহু-তা’লা বলেন, “তোমাদের পালনকর্তা তোমাদের মনে যা আছে তা ভালই জানেন। যদি তোমরা সৎ হও, তবে তিনি তওবাকারীদের জন্যে ক্ষমাশীল।”(সূরা ইসরা:২৫)

তিনি দীর্ঘদিন যাবত তিনি দেশ থেকে পালিয়ে যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন দেশে অবস্থান করছেন। তিনি একজন আইনজীবি ও বটে। নাস্তিকতার বিষ ছড়ানোর কারনে তার সাথে তার পরিবারের সম্পর্কে বিঘ্ন ঘটে। তার দাবি তার বাবা একজন আলেম ছিলেন, যিনি একটি মসজিদ ও তৈরা করেছেন। আর তিনি তার ইউটিউবের একটা ভিডিওতে বললেন, আমি হলাম আলেমের ঘরে জালেম..!পরিবারের বিচ্ছেদের সাথে সাথে তার স্ত্রী ও তাকে ছেড়ে চলে যায়। কিন্তু তিনি ইউটিউব লাইভে এসে তার স্ত্রীকে নিয়েই এবার ইসলাম ধর্মে ফিরে এসেছেন। সোস্যাল মিডিয়ায় তার এই ধর্ম গ্রহণকে কেউ কেউ বলেছেন ,এটা তার স্ত্রীর সাথে সম্পর্কে পুনরায় ফিরে আসার জন্য করেছেন।

কিন্তু তার দাবী তাকে কেউ ইসলাম ধর্মে ধাবিত করতে পারে নি, কোন সম্পর্কের জন্য ও নয় কিংবা সোস্যাল মিডিয়ায় প্রচার করা তার ইসলামের বিভিন্ন বিতর্কিত বিষয়গুলোর ও উত্তম জবাব পায়নি যে তাকে ধর্মে আসতে হবে। তবে তার মতে, আল্লাহর রহমতে তিনি ইসলাম ধর্মে ফিরে এসছেন এবং এখন তিনি আবার তার বিতর্কিত বক্তব্য খন্ডন করবেন বলে ভিডিওটি তে বলেছেন। তার এই ধর্মগ্রহণকে কেন্দ্র করে যারা তাকে পল্টিবাজ বলবে, তিনি তাদেরকে বলেন, “Nobody can read my mind except Allah”. তার এই ধর্ম গ্রহণ নিয়ে, কেউ কেউ বলছেন সে যেন তার পূর্বের কীর্তি কলাপের জন্য মুসলিম জনগণের নিকট ক্ষমা চায়।

কিন্তু মুফাস্সিল ইসলাম বলতে চায়, পৃথিবীর কোন মুফতি আমাকে ধর্মে ফিরিয়ে নিয়ে আসতে পারে নি,আজ যদি আমি কাফের অবস্থায় মারা যেতাম তখন কি হতো..!কিন্তু আল্লাহ আমাকে রহম করেছেন।যেহেতু আমি কারোর অনুরোধ কিংবা কোন রকম যৌক্তিক বক্তব্য শুনে মুসলিম হইনি সেহেতু কারো কাছে আমি ক্ষমা চাইতে চাইনা। আর আমি কেবল আল্লাহর রাব্বুল আলামীনের জন্যই মুসলিম হয়েছি। বক্তব্যটিতে তিনি আরো বলেন যে,আমার মুসলিম হওয়ার পিছনে সাধারণ মুসলিমদের খুশি হওয়ার কিছু নেই। কারণ তাদের এতে কোন ক্রেডিট নেই। কোন বিষয়টি মুফাস্সিল ইসলামকে পুনরায় ইসলামে ধাবিত করেছে, তা এখন প্রকাশ করেনি মুফাস্সিল ইসলাম। তবে তিনি যদি ইসলাম ধর্মে অটল থাকে তবে বাংলাদেশের নাস্তিকদের মধ্যে একটা ভাটা পড়বে।

মুফাস্সিল ইসলামের ধর্ম গ্রহণের কথা শুনে লোপা রহমান নামের এক বাংলাদেশী নাস্তিক বিষদগার করেন। পক্ষান্তরে মুফাস্সিল ইসলাম ও লোপা রহমানকে উপযুক্ত জবাব দেন। সবশেষে বলতে চাই, মুফাস্সিল ইসলামের ইসলাম ধর্ম গ্রহণে বা ত্যাগে আল্লাহর মনোনিত ধর্মের কিছুই যায় আসেনা। তবে আল্লাহ্ যদি কাউকে নিজ অনুগ্রহে সৎ পথে পরিচালিত করতে চান, তবে কে আছে তাকে পথভ্রষ্ট করবে..! আল্লাহ বলেন সূরা ইসরার ১৫নং আয়াতে, যে কেউ সৎপথে চলে, তারা নিজের মঙ্গলের জন্যেই সৎ পথে চলে। আর যে পথভ্রষ্ট হয়, তারা নিজের অমঙ্গলের জন্যেই পথ ভ্রষ্ট হয়। কেউ অপরের বোঝা বহন করবে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here