বাংলাদেশে শিশু ধর্ষণ ও মুসলিম উম্মাহর করণীয়

0
115
শিশু ধর্ষণ

বাংলাদেশে শিশু ধর্ষণ ও মুসলিম উম্মাহর করণীয়:

বাংলাদেশের এই সময়টাতে শিশু ধর্ষণ যেন হয়ে উঠেছে প্রতি ঘন্টার ঘটনা। এই চরম মুহূর্তে কেবল সামাজিক সচেতনা সৃষ্টির মাধ্যমে ধর্ষকদের কামনাকে থামানো সম্ভব নয়। যতক্ষণ না ধর্ষকদের ক্যাপিটাল পানিসম্যান্ট দেয়া হবে। অন্তত শিশু ধর্ষণের বেলায় হলেও মৃত্যু দন্ড কিংবা লিঙ্গ কর্তণ কার্যকর করা উচিত।

কেবল লম্বা দাঁড়ি, টুপি আর ভালো ভালো কথা বললেই আজ তাদেরকে তাক্বওয়াবান ভাবা যায়না। ধর্ষকরা যেন আজ এই পবিত্র বিষয়গুলোকে নিজেদের কামনা চরিতার্থে ভোগদখল করে নিয়েছে। তাদের এমন লেবাসের কারণে কলঙ্কিত হচ্ছে মুসলিম সমাজ ও সংস্কৃতি।
যেখানে আগে একজন স্কুল পড়ুয়া শিশু কারো মাথায় টুপি কিংবা দাঁড়ি দেখলে সালাম প্রদান করতো, সেখানে এখন তারা তাদেরকে দেখে আতঙ্কে উঠে। কোন কোন ধর্মনিরপেক্ষ মতামত অবলম্বনকারী বাবা-মা তার সন্তানকে শিখাতে থাকে, এই যে লম্বা দাঁড়ি ও টুপি পড়া লোকটি দেখছো, এরাই ধর্ষণকারী। মনে নেই তোমার বাবা যে তোমাকে গত রাতে টিভিতে দেখাইছিলো।
তোমার মত একটা ছোট মেয়েকে যে মেরে ফেলছে..!
হ্যাঁ , বাচ্চাদের এখন তাই শেখানো হচ্ছে।

বাংলাদেশের সুশীল সমাজের বিদ্বানরা আজ চুপ, নারীবাদি সংগঠন গুলোকেও তীব্র কোন প্রতিবাদ করতে দেখা যায়না। নারী হয়ে নারীর ইজ্জত রক্ষায় কেন আন্দোলন গড়ে তুলেনা, কেনো টকশো তে ধর্ষকদের কঠিন শাস্তির কথা উপস্থাপন করা হয়না?

তবে কি প্রতিটি নারী অনিজের ইচ্ছায় কিংবা অনিচ্ছায় একবার হলেও ধর্ষিত হতে চায়? এটা কি তাদের কাছে নিছক বিনোদন ? আর ধর্ষকের বিরুদ্ধে মামলাটা কি কেবল অফিসিয়াল ফরম্যালিটিস?
যদি তাই না হয় , তাহলে চুপ কেন?

যদি এই হয় সুশীল নারীবাদিদের কামনা বাসনা, তবে তাদের সন্তানদের কি অপরাধ ছিলো? যে কিনা ‘কামনা’ শব্দটির সাথে পরিচিত নয়, যে এখনও প্রাইম্যারী লেভেল ক্রস করেনি? তবে সেই ছোট ফুটে মেয়েটির কি অপরাধ যে কিনা এখনও শিশু থেকে কিশোরে পৌঁছায়নি? যৌবন যাকে তখন স্পর্শ করেনি।


এদেশের প্রধানমন্ত্রী নারী, নারীর উন্নয়নে তিনি প্রশংসাযোগ্য .! কিন্তু যখন ৩-১০ বছরের শিশু গুলো ধর্ষিত হচ্ছে তখন কেন কেবল নিন্দা আর সচেতনতামূলক বাক্য। যেখানে শিশু ধর্ষকদের কোন শাস্তির ব্যবস্থা নেই। অথচ ৪৭ বছর পরও শিশু রাসেল হত্যার বিচার চলে, চলে পিতার হত্যার বিচার। অথচ ৪৭ ঘন্টা পুরোনো হয়ে গেলে হত্যা আর ধর্ষণগুলো যেন হয়ে যায় প্রসঙ্গহীন। কারো এই ৪৭ ঘন্টায় আরো ৪ টা শিশু ধর্ষণ ঘটে যায়।৯

আমরা ইতোপূর্বে কোন শিশু ধর্ষণকারীর প্রকাশ্যে মৃত্যুদন্ড কার্যকর হতে দেখিনি।

যদি অপরাধের শাস্তির বিধান এই ভাবে লঙ্গ হয় তবে আল্লাহ্ ভীরু মুসলিমরা কখনোই তা মেনে নিবেনা। যদি শাসক উপযুক্ত ব্যবস্থা না নেয়, তবে নিশ্চয় এই কোরআনে আল্লাহ্ আজ্জা ওয়া জাল বর্ণনা করেছেন সূরা মায়েদার ৪৫নং আয়াতে,


وَكَتَبْنَا عَلَيْهِمْ فِيهَا أَنَّ النَّفْسَ بِالنَّفْسِ وَالْعَيْنَ بِالْعَيْنِ وَالْأَنفَ بِالْأَنفِ وَالْأُذُنَ بِالْأُذُنِ وَالسِّنَّ بِالسِّنِّ وَالْجُرُوحَ قِصَاصٌ فَمَن تَصَدَّقَ بِهِ فَهُوَ كَفَّارَةٌ لَّهُ وَمَن لَّمْ يَحْكُم بِمَا أَنزَلَ اللَّهُ فَأُولَٰئِكَ هُمُ الظَّالِمُونَ

আমি এ গ্রন্থে তাদের প্রতি লিখে দিয়েছি যে, প্রাণের বিনিময়ে প্রাণ, চক্ষুর বিনিময়ে চক্ষু, নাকের বিনিময়ে নাক, কানের বিনিময়ে কান, দাঁতের বিনিময়ে দাঁত এবং যখম সমূহের বিনিময়ে সমান যখম। অতঃপর যে ক্ষমা করে, সে গোনাহ থেকে পাক হয়ে যায়। যেসব লোক আল্লাহ যা অবতীর্ণ করেছেন, তদনুযায়ী ফয়সালা করে না তারাই জালেম।

এরপরও যদি শাসক তার দায়িত্ব পালন না করে, তবে আল্লাহ্ প্রতিটি মুসলিমকে তার সামর্থ্য অনুযায়ী কিসাসের ফয়সালা দিয়ে দিয়েছেন।

আল্লাহ্ সুবহানাহু-তা’লা সূরা মায়েদার ৪৫ নং আয়াতে বলেন:

وَكَتَبْنَا عَلَيْهِمْ فِيهَا أَنَّ النَّفْسَ بِالنَّفْسِ وَالْعَيْنَ بِالْعَيْنِ وَالْأَنفَ بِالْأَنفِ وَالْأُذُنَ بِالْأُذُنِ وَالسِّنَّ بِالسِّنِّ وَالْجُرُوحَ قِصَاصٌ فَمَن تَصَدَّقَ بِهِ فَهُوَ كَفَّارَةٌ لَّهُ وَمَن لَّمْ يَحْكُم بِمَا أَنزَلَ اللَّهُ فَأُولَٰئِكَ هُمُ الظَّالِمُونَ

“আমি এ গ্রন্থে তাদের প্রতি লিখে দিয়েছি যে, প্রাণের বিনিময়ে প্রাণ, চক্ষুর বিনিময়ে চক্ষু, নাকের বিনিময়ে নাক, কানের বিনিময়ে কান, দাঁতের বিনিময়ে দাঁত এবং যখম সমূহের বিনিময়ে সমান যখম। অতঃপর যে ক্ষমা করে, সে গোনাহ থেকে পাক হয়ে যায়। যেসব লোক আল্লাহ যা অবতীর্ণ করেছেন, তদনুযায়ী ফয়সালা করে না তারাই জালেম।”

অতএব, যদি সরকারের ব্যর্থতা এভাবে দৃঢ় ও অনগ্রসর হতে থাকে, আর সে অবস্থায় আমার ছোট বোন কিংবা মেয়েটি ধর্ষিত হয় তবে আমি ভাই কিংবা বাবা হয়ে কেবল এটা বলেই শেষ করে দিতে পারিনা যে, রাষ্ট্রের কাছে বিচার চাই। কেননা এই রাষ্ট্র শিশুকে হেফাজতে রাখতে চরমভাবে ব্যর্থ।

বরং আল্লাহর দেয়া বিধানকেই তখন মেনে নিতে হবে সমাজে শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য।


LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here