মুসলিম সেজে প্রতারণা ; উম্মে আব্দুল্লাহ ও হাসনাত

0
529

ইন্স্ট্রাগ্রাম ও ইউটিউবের জনপ্রিয় মুসলিম দম্পতি উম্মে আব্দুল্লাহ এবং হাসনাত সারাহ্) সম্পর্কে সম্প্রতি ভয়াবহ তথ্য ফাঁস হয়েছে।

ইউটিউবে এই ত্রয়ী দম্পতি উম্মে আব্দুল্লাহ নামেই বেশি পরিচিত।তাদের সম্পর্কে সবচেয়ে ভয়াবহ যে তথ্যটি পাওয়া গেছে তা হলো হাসনাত করিম আসলে মুসলিমই নয়, সে একজন অজ্ঞেয়বাদী (Agnostic)। এবং উম্মে আব্দুল্লাহ নামে পরিচিত নিকাব পড়া সেই নারী আসলে একজন মডেল।’রুকসানা আলী ‘ নামে পরিচিত হলেও অন্য নামে তার একটি ইনস্টাগ্রাম একাউন্ট পাওয়া গেছে যা থেকে এই নারীর দ্বিমুখী জীবনের ভয়াবহ চিত্র উঠে আসে।মুসলিমদের সামনে নিকাবী হিসেবে দৃশ্যমান হলেও বাস্তবে তার পোশাক বেপরোয়া ও প্রগতিশীলদের মতই।

হাসনাত সম্প্রতি দ্বিতীয় বিয়ে করেছে সিস্টার সারাহ্কে।এবং সিস্টার সারাহ্ই প্রথম হাসনাতের বিরুদ্ধে মুখ খোলে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের অভিযোগ আনে এবং মুসলিমদের অনুরোধ করেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের এই সব মুসলিম তারকাদের অন্ধ অনুসরণ না করতে।

হাসনাত তার দ্বিতীয় বিয়ের ব্যাপারে বলেছিলেন মুফতি মেনক এই বিয়ের অনুমতি দিয়েছে,কিন্তু মুফতি মেনক তা অস্বীকার করেন।এরপরই হাসনাতের বিরুদ্ধে একেরপর এক অভিযোগ আসতে থাকে।

সিস্টার সারা অভিযোগ করেন বিয়ের পর থেকেই হাসনাত তাকে ক্রমাগত ইসলাম থেকে সরে আসতে চাপ প্রয়োগ করতে থাকে এবং নির্যাতন করতে থাকে।সম্প্রতি হাসনাত তার দুই স্ত্রীদের অনৈসলামিক কাজে যুক্ত করার চেষ্টা করলে সারাহ্ এই স্বীকারোক্তি দেন।

এছাড়া হাসনাতের বিরুদ্ধে মুসলমানদের সাহায্যের নামে তোলা টাকা আত্মসাৎ, ভুয়া রুকাইয়া চিকিৎসা (ঝাড়ফুঁক) এবং এর মাধ্যমে অন্য নারীদের সাথে অসংলগ্ন আচরণের অভিযোগ উঠেছে।

ইউটিউব,ইন্সটাগ্রাম এবং ফেসবুক মিলিয়ে এই ত্রয়ী দম্পতির ২.৩ মিলিয়নেরও বেশি অনুসারী রয়েছে এবং মুসলিম বিশ্বে তার তথাকথিত হালাল ভালোবাসার ভিডিও গুলো ব্যাপকই জনপ্রিয়।তারা আসলে মুসলমানদের অনুভূতি ব্যবহার করে অর্থ উপার্জন করতো কিন্তু বাস্তবে জীবনযাপন করতো তার উল্টো।

ইসলামকে ব্যবহার করে জনপ্রিয়তা লাভের এমন ঘটনা এর আগেও একাধিক বার ঘটেছে। এই ঘটনার মধ্য দিয়ে মুসলিম তারকাদের অন্ধভাবে অনুসরণ যে কতটা মারাত্মক হতে পারে তা আবারও প্রমাণ করে।

©সাহাবা নিউজ.কম

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here